বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বুয়েট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বুয়েট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০।বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়  হচ্ছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রকৌশল-সম্পর্কিত উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সম্প্রতি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বুয়েট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ প্রকাশ করেছে।আগ্রহী ও যোগ্য ব্যক্তিদের আবেদন করার জন্য আহব্বান করা হচ্ছে।

১।পদের নাম: প্রধান সহকারী   
পদ সংখ্যা: ০৩ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা: প্রার্থীকে কোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হইতে স্নাতক ডিগ্রীসহ অফিসের কাজে কমপক্ষে ৫ (পাঁচ) বৎসরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন হইতে হইবে।
বেতন স্কেল: ১১,৩০০-২৭,৩০০ টাকা।

২।পদের নাম: ইনফেকশন এ্যাসিস্ট্যাস্ট
পদ সংখ্যা: ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা: প্রার্থীকে কোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হইতে স্নাতক ডিগ্রীসহ অফিসের কাজে কমপক্ষে ৫(পাঁচ) বৎসরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন হইতে হইবে।
বেতন স্কেল: ১১,৩০০-২৭,৩০০ টাকা।

৩।পদের নাম: হিসাব রক্ষক
পদ সংখ্যা: ০৩ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা: প্রার্থীকে বাণিজ্য বিভাগে কমপক্ষে স্নাতক ডিগ্রীসহ ।
বেতন স্কেল: ১১,৩০০-২৭,৩০০ টাকা।

৪।পদের নাম: পি. এ
পদ সংখ্যা: ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা: প্রার্থীকে কমপক্ষে স্নাতক ডিগ্রীসহ সর্টহ্যান্ড-এ বাংলায় ৫০ এবং ইংরেজীতে ৮০ শব্দ এবং কম্পিউটার কম্পােজ-এ বাংলায় ৩০টি ও ইংরেজীতে ৪৫টি শব্দ এর গতি সম্পন্ন ।
বেতন স্কেল: ১১,০০০-২৬,৫৯০ টাকা।

৫।পদের নাম: লাইব্রেরী এসিস্ট্যান্ট কাম-ডকুমেন্টেশন এ্যাসিস্ট্যান্ট
পদ সংখ্যা: ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা: প্রার্থীকে স্নাতক ডিগ্রী এবং কোন অনুমােদিত প্রতিষ্ঠান হইতে গ্রন্থাগার বিজ্ঞান গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞানে ডিপ্লোমাধারী হইতে হইবে।
বেতন স্কেল: ১১,০০০-২৬,৫৯০ টাকা।

সরকারি বেসরকারি সব ধরনের চাকরির খবর সবার আগে পাবেন এই ওয়েবসাইটে www.goodjobbd.com । তাই যেকোনো ধরনের চাকরির খবর পেতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইটে ।বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বুয়েট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০  সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য দেখতে নিচের ছবিটি লক্ষ্য করুন -বিস্তারিত তথ্য দেখুন নিচের ছবিতে।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বুয়েট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০

Qny5tdi
Xy7dasq

Source: Kalerkantha, 24 December 2021

Application Deadline: 20 January 2021

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুনঃ https://www.buet.ac.bd/web/

বুয়েট উনবিংশ শতাব্দীর শেষভাগে জরিপকারদের জন্য একটি জরিপ শিক্ষালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৮৭৬ সালে তদানীন্তন ব্রিটিশ রাজ ঢাকা সার্ভে স্কুল নামে একটি প্রতিষ্ঠান চালু করে। এর উদ্দেশ্য ছিল সেই সময়কার ব্রিটিশ ভারতের সরকারি কাজে অংশগ্রহণকারী কর্মচারীদের কারিগরি শিক্ষা প্রদান করা। ১৯০৫ সালে ঢাকার তৎকালীন খাজা আহসানউল্লাহ এ বিদ্যালয়ের প্রতি আগ্রহী হন এবং মুসলমানদের শিক্ষাদীক্ষায় অগ্রগতির জন্য বিদ্যালয়ে ১.১২ লক্ষ টাকা দান করেন। তার মহৎ অনুদানে এটি পরবর্তীতে একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষালয় হিসেবে প্রসার লাভ করে এবং তার স্বীকৃতি হিসেবে ১৯০৮ সালে বিদ্যায়নটির নামকরণ করা হয় আহসানউল্লাহ ইঞ্জিনিয়ারিং স্কুল। আহসানউল্লাহ ইঞ্জিনিয়ারিং স্কুল তিন বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা কোর্স দিতে শুরু করে পুরকৌশল, তড়িৎকৌশল এবং যন্ত্রকৌশল বিভাগে। শুরুতে একটি ভাড়া করা ভবনে বিদ্যালয়টির কার্যক্রম চলত। ১৯০৬ সালে সরকারি উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হলের কাছে এর নিজস্ব ভবন নির্মিত হয়। এ স্থানের একটি উঁঁচু চিমনি কিছুদিন আগেও এই স্মৃতি বহন করত। ১৯২০ সালে এটি বর্তমান অবস্থানে স্থানান্তরিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.